অসমাপ্ত কাহিনী ১

১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৩, রাত ৩টা বেজে ৪০ মিনিটের সময় রায়হানের মোবাইলে আচমকা একটি কল আসল। ঘুম ঘুম চোখে রায়হান কল রিসিভ করল, অপরপাশের কণ্ঠস্বর শুনে রায়হান আঁতকে উঠল! এই কোন কণ্ঠস্বর? এই তো সেই কণ্ঠস্বর, এতো ভুলার নয়। রায়হানের মনে পড়ে গেল সেদিনের কথা।

সেদিন ছিল ১৩ মার্চ ২০১০, রায়হান এবং তার বন্ধু রফিক একসাথে কলেজের বারান্দা দিয়ে হাঁটছিল। হঠাঠ রফিক বলে উঠল, দোস্ত চল তোকে আজ আমার জীবনের একটা গল্প শুনাবো। রায়হান ফাজলামো করে বলল তোর আর কি গল্প রে, তোর জীবনের সব গল্পই তো আমি লিখি। রফিক গম্ভীর সূরে বলল এ গল্প সে গল্প নয়, এটা ভালোবাসার গল্প। রায়হান বলল ভালোবাসা? তুই!! আমার সাথে ইয়ার্কি করছিছ? দিব একটা! তারপর রফিক বলল, কিভাবে তার মেয়েটির সাথে পরিচয়, কিভাবে দুজন তাদের জীবনের সবকিছু শেয়ার করেছে। দুজনে একসাথে চলেছে, সারাজীবন একসাথে চলার প্রতিজ্ঞা করেছে। সবশেষে রফিক বলল মেয়েটির নাম নীলা। নামটা শুনার পরপরই রায়হান আশ্চর্য হয়ে গেল, বলল দোস্ত ছবি দেখা। রফিক পকেট থেকে ছবি বের করে দেখাতেই রায়হানের মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ল! একি দেখছে সে? এ তো তারই প্রিয়তমা! যার সাথে সারাজীবন থাকার প্রতিজ্ঞা করেছে সে। ভাঙা মনের রায়হান রফিককে ব্যাপারটা বুঝতে না দিয়ে বলল দোস্ত, জরুরী কাজে আমাকে আগামীকালই সিলেট যেতে হবে। তোর প্রিয়তমার সাথে সেখান থেকে ফিরেই দেখা করব, দোয়া করি যেন তোরা সুখী জীবনে চলাচল করতে পারিস।

এই বলে রায়হান পথচলা শুরু করল, মনে মনে ভাবছে বন্ধুত্বের চেয়ে বড় এই পৃথিবীতে কিছুই নেই। সেই বন্ধুত্ব রক্ষা করবে, সরে যাবে নীলার জীবন থেকে।

তারপর থেকে রায়হান আর রফিকের কখনোই দেখা হয় নি। রফিক অনেক চেস্টা করে জানতে পারেনি কেন রায়হান তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে।

আজ হঠাৎ রফিকের কন্ঠ শুনে রায়হানের মনে পড়ে গেল সেদিনের সেইসব স্মৃতি। কিন্তু কি!! ওপাশ থেকে কেউ কথা বলছে না কেন? রফিক কাঁপা কাঁপা স্বরে বলল, দোস্ত, নীলা তো মানুষ না, ও তো!!! হঠাৎই কল কেটে গেল। রায়হান আর কিছু জানতে পারল না। রায়হান তার বন্ধু হাসানের মাধ্যমে নাম্বার ট্রেস করল, কিন্তু হায় এই নাম্বারই তো ইনভ্যালিড। তবে এইটা কি ছিল, রফিককে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। রায়হান জানতে পারেনি কিভাবে কলটা এসেছিল, এবং কিভাবেই বা সে রফিকের কণ্ঠস্বর শুনেছিল।

বি.দ্রঃ এইসিরিজের প্রতিটি গল্পের চরিত্র এবং ঘটনা কাল্পনিক। কারো ব্যক্তিগত জীবনের সাথে মিলে গেলে লেখক তার দায়ভার গ্রহণ করবে না।

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *